Homeলাইফস্টাইল৫ টি সেরা ঘরোয়া বিউটি টিপস

৫ টি সেরা ঘরোয়া বিউটি টিপস

 

সুন্দর, উজ্বল ও ফ্রেশ ত্বক সব মানুষের প্রথম পছন্দ। ত্বক সুন্দর থাকলে কোনরকম প্রসাধনীর ব্যবহার ছাড়াই আপনাকে দেখাবে অনেক আকর্ষণীয়।আজ আমরা আলোচনা করব সেরা ৫টি ঘরোয়া বিউটি টিপস নিয়ে। বর্তমানে আমরা রঙবেরঙের বিজ্ঞাপন দেখে নানান ধরনের ক্ষতিকর ও কামিকেল যুক্ত প্রসাধনী সামগ্রী ত্বকে ব্যবহার করি। যার প্রভাবে পঁচিশ পেরোনোর পরেই ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায়।



ঘরোয়া বিউটি টিপস

আজ আমি এই আপনাদের জন্য ত্বক সম্বন্ধিত এমন কিছু ঘরোয়া বিউটি টিপস শেয়ার করব যার সঠিক ব্যবহারে আপনার ত্বকও হয়ে উঠবে আরো কোমল, সতেজ ও আকর্ষনীয়। তো চলুন দেরি না করে শুরু করা যাক-

ঘরোয়া বিউটি টিপস
ঘরোয়া বিউটি টিপস

১. ঘরোয়া বিউটি টিপস (মধু )

প্রাচীনকাল থেকে সৌন্দর্য সচেতনদের নানান কাজে মধুর ব্যবহার হয়ে আসছে। মধুর মধ্যে থাকা মশ্চারাইজার ত্বকের শুষ্কতা কমিয়ে ত্বকের লাবন্যতা ধরে রাখে। মধুর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বয়সের ছাপ কমিয়ে ত্বককে করে তোলে কোমল ও নমনীয়।এটি ত্বককে ব্যক্টেরিয়ার সংক্রমন হতে রক্ষা করে। এছাড়াও ফাটা ঠোঁট ও পায়ের গোড়ালিতে নিয়মিত মধু মাখলে উপকার পাওয়া যায়।

২. ঘরোয়া বিউটি টিপস (হলুদ)

হলুদকে বলা হয় মশলার রানী। হলুদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ঔষধী গুনাগুন। হলুদের মধ্যে থাকা কিছু বিশিষ্ট উপকরণ ব্রণের সমস্যা প্রতিহত করে। হলুদ গুঁড়োর সাথে এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে তা ব্রণের ওপর লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। হলুদের মধ্যে থাকা অ্যান্টিসেপটিক ব্রণের সংক্রমণ প্রতিরোধ করে এবং লেবুর মধ্যে থাকা ব্লীচিং ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও হলুদের পেস্ট ত্বকের অবাঞ্চিত লোম উঠাতে সাহায্য করে।

৩. ঘরোয়া বিউটি টিপস (লেবু)

লেবু আমাদের রান্নাঘরে সবসময়ই থাকে। শুধু খাদ্য হিসেবেই নয়, রূপচর্চায়ও লেবুর রয়েছে অনেক অবদান। ত্বকের কালচে ভাব দূর করা সহজেই সম্ভব লেবুর মধ্যে থাকা ব্লিচিং গুনাগুনের জন্য।লেবুর রসের সাথে বেকিং পাউডার মিশিয়ে ব্রণের দাগ, ত্বকের কালচে ভাব, কনুই ও হাঁটুর কালচে ভাবের উপর লাগাতে হবে। কিছুক্ষন পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে অন্তত দুইবার এটি লাগালে ত্বকের কালচে ভাব দূর হয়ে খুব সহজেই উজ্বলতা ফিরে আসবে।

৪. ঘরোয়া বিউটি টিপস (দুধ)

রুপচর্চায় অতি প্রাচীনকাল থেকেই দুধের ব্যবহার হয়ে আসছে। দুধের মধ্যে থাকা ল্যাকটিক এসিড ত্বককে পরিষ্কার করতে, দাগ-ছোপ দূর করতে ও ত্বক উজ্বল করতে সাহায্য করে।আমরা যদি নিত্যদিনের ত্বকের যত্নে দুধের ব্যবহার করতে পারি, তাহলে বয়স বাড়লেও ত্বকের বয়স বাড়বে না। ঠান্ডা দুধ টোনার হিসেবেও ভালো কাজ করে। এটি ত্বকে উপস্থিত নানা সমস্যারও সমাধান করে। Read More : দাঁত ঝকঝকে করার কয়েকটি সেরা উপায়

৫. ঘরোয়া বিউটি টিপস (অ্যালোভেরা)

ত্বকের কালো দাগছোপ দূর করতে ও ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে অ্যালোভেরা অত্যন্ত কার্যকরী একটি উপাদান।এতে রয়েছে দুইশটিরো বেশী প্রকৃতিক পুষ্টি উপাদান। শুধু ত্বকের সমস্যায় নয়, সামগ্রিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অ্যালোভেরার উপকারিতা অসীম। অ্যালোভেরা জেল বের করে আলতো হাতে ত্বকের আক্রান্ত স্থানে এমনভাবে ম্যাসাজ করুন, যেন ত্বক সম্পূর্ন জেল শুষে নেয়। ঘন্টা খানেক পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

বিউটি টিপস ২০২১

  • তাছাড়া ভাল মশ্চারাইজার হিসেবে ঘি ব্যবহার করতে পারেন । ঘি এর মধ্যে থাকা ফ্যাটি এসিডগুলো আপনার ত্বকের স্বাভাবিক আদ্রত বজায় রাখতে সাহায্যে করবে। তাই ঘি হল ত্বকের জন্য একটি ভাল ময়েশ্চারাইজার হিসেবে সাহায্য কারী আর যদি আপনার ত্বক শুস্ক হয়ে থাকে তাহলে ভালভাবে ঘি দিয়ে মেসেজ করুন । দেখবেন আপনার ত্বক মোলায়েম হয়ে উঠছে।
  • যাদের চুল শুষ্ক তারা ঘি ব্যবহার করুন । এক্ষেত্রে সামান্য নারিকেল তেল বা অলিভ অয়েলের সাথে ঘি মিশিয়ে তা চুলে ব্যবহার করুন । কয়েকবার ব্যবহার করার পর দেখবেন আপনার চুল সিল্কি হয়ে উঠছে।
  • শীতে আমাদের আরেকটি প্রধান সমস্যা হল ঠোঁট শুষ্ক হয়ে যাওয়া বা অনেকের ঠোঁট এর চামড়া উঠে যাওয়া এক্ষেত্রে ঘি আপনার ঠোঁটে দিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন এতে আপনার ঠোঁট এর আদ্র ভাব টা দূর হয়ে যাবে।
  • আমাদের মাঝে আরেকটি কমন সমস্যা হল ব্রন । অনিয়মিত জীবন ও অস্বাস্থ্যকর খ্যদ্য খাওয়ার ফলে আমাদের সাধারণত এই সমস্যাটি হয়ে থাকে । উঠটি বয়সের ছেলে মেয়েদের সাধারণত এই সম্যাটি বেশী দেখা দেয় । এছাড়াও এই সমস্যাটি হরমোন এর কারণে ও হয়ে থাকে ।চলুন এর একটা সমাধান হয়ে যাক । সামান্য কিছু হলুদ এর গুড়োর সাথে এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরী করে ব্রণের উপর ব্যবহার করুন । তারপর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে তা ভাল ভাবে পরিষ্কার করে ফেলুন।

 

Rahmannasimahttps://dokandaari.xyz
খুব ছোট বেলা থেকেই লেখালেখির খুব নেশা। তাই লেখতে ভালবাসি। আমি আতিকুর রহমান।ইনফরমেশন মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত আছি। কিছু টিপস এবং অনলাইনে আয় বিষয়ে সঠিক গাইডলাইন সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ব্লগিং এ জড়িত হয়েছি। ধন্যবাদ
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen + ten =

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular