HomeUncategorizedঅন্যের ফেইসবুক পাসওয়ার্ড জানার উপায়

অন্যের ফেইসবুক পাসওয়ার্ড জানার উপায়

অন্যের ফেইসবুক পাসওয়ার্ড জানার উপায়

আমরা অনেক সময় আমাদের ফেইসবুক পাসওয়ার্ড ভুলে যাই বা কখনো কখনো আমরা আমাদের পরিচিত ব্যক্তিদের বা অন্য ব্যক্তিদের পাসওয়ার্ড জানানা চেষ্টা করে থাকি।আজকে আমরা,আলোচনা করব কিভাবে আমরা আমাদের ভূলে যাওয়া পাসওয়ার্ড বা অন্যব্যক্তির পাসওয়ার্ড উদ্ধার করব।ফেইসবুক পাসওয়ার্ড

ফেইসবুক ব্যবহার করার জন্য বা খোলার জন্য অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের মধ্যে অন্যতম হল পাসওয়ার্ড। এই পাসওয়ার্ড দ্বারাই আমরা আমাদের আইডিতে অন্যদের প্রবেশ আটকাই।প্রতিটি ব্যক্তির পাসওয়ার্ড ভিন্ন। ফেসবুকের পাসওয়ার্ড ছাড়া ফেসবুকে লগইন করা সম্ভব নয়,আপনার ফেইসবুক পাসওয়ার্ড শক্তি শালী বা দুর্বোধ্য হতে হবে কারন নতুবা কেউ যদি আপনার ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড জানতে পারে তবে আপনার সমস্ত ডেটা এবং তথ্য ফেসবুক থেকে সহজে ছিনিয়ে নিতে পারবে যেহেতু একজন ব্যক্তির ফেইসবুকে তার অনেক গোপন কনভারসেসন থাকে বা অনেক ব্যক্তিগত তথ্য থাকে। অনেকক্ষেত্রে দেখা যায় অনেকে খারাপ উদ্দেশ্যে মেয়েদের ফেসবুক আইডি পাসওয়ার্ড হ্যাক করে তাদের বিব্রত বা হয়রান করার চেষ্টা করে।

বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে আমাদের এতবেশি অ্যাকাউন্ট রয়েছে যে প্রায়ই কোন অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড কোনটা আমরা মনেই করতে পারি না। এর প্রধান কারন হল বেশিরভাগ সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলিতে একবার লগইন করার পর পরবর্তীতে লগ’ইন করার সুবিধার্থে পাসওয়ার্ড অটোমেটিক সেভ করার অপশন থাকে ফলে পরবর্তীতে পাসওয়ার্ডের প্রয়োজন হয় না হওয়ার দরুন এটা আমরা মনে রাখি না বা রাখার তেমন প্রয়োজন পড়ে না।তাই দীর্ঘক্ষণ পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন না করার ফলস্বরূপ পাসওয়ার্ডটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষিত হয় , হ্যাকাররা সহজেই আপনার পাসওয়ার্ড জানতে পারে।

চলুন জেনে নেই কিভাবে নিজের ভূলে যাওয়া পাসওয়ার্ডের পাশাপাশি কিভাবে অন্যের ফেসবুক পাসওয়ার্ড বের করা যায়

আমরা প্রায়শই কৌতুহল বশত অন্যের পাসওয়ার্ড জানার চেষ্টা করি বা জানতে চাই। এটা খুবই প্রচলিত একটি বিষয় অন্যের ফেসবুক পাসওয়ার্ড সন্ধান করার চেষ্টা করা। সেলেব্রেটি,বা পপুলার ফিগার অথবা পরিচিত ব্যক্তির ফেইসবুক পাসওয়ার্ড জানার ক্ষেত্রে অনেকের বা হ্যাকারদের বেশি আগ্রহ।এমনকি ইন্টারনেট এবং ফেসবুক সম্পর্কে যাদের বিস্তর ধারণা নেই, তারাও অন্যের ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ডও সন্ধান করার চেষ্টা করে থাকে ।

অনেক সময় কোন কাজের প্রয়োজনে তথ্য সংগ্রহের জন্য বা আইনগত কোন কারনে অন্যের পাসওয়ার্ড বের সঠিক হলেও খারাপ উদ্দেশ্যে বা কোন কারন ছাড়াই কারো পাসওয়ার্ড জানার চেষ্টা করা উচিৎ নয়। কারন অনেক সময় অন্যের পাসওয়ার্ড নিয়ে খারাপ লোকেরা বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়।তারা নানাভাবে ব্লাকমেইল করে থাকে মানুষকে।হয়রানি করাই তাদের মূল উদ্দেশ্য থাকে। এজন্য অন্যের পাসওয়ার্ড জানার চেষ্টা করা মোটেই ঠিক নয়।

তবে অন্য কারও ফেসবুক পাসওয়ার্ড বের করা এতোটাও সহজ নয় সাধারন মানুষের জন্য, না আছে বের করার কোন সহজ উপায় ।তবে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং সম্পর্কে যাদের মোটামুটি ধারণা রয়েছে বা যারা হ্যাকার তারা চেষ্টা করলে অন্য কারও ফেসবুকের পাসওয়ার্ড খুঁজে পেতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে খুব বুদ্ধির সাথে কাজ করতে হবে,উক্ত ব্যক্তি সম্পর্কে কিছুটা ধারণা থাকতে হবে।হয়তো যার পাসওয়ার্ড বের করা হবে তার সম্পর্কে অনেক কিছু জানলেও কেউ শতভাগ নিশ্চিততার সাথে অন্য কারও ফেসবুক পাসওয়ার্ড বের করতে সক্ষম হবে না।কারন একটি শক্তি শালী পাসওয়ার্ড বের করা একদম সহজ নয়।তাছাড়া কম্পিউটার প্রোগ্রামিং এর সম্পর্কে বিদশ জ্ঞানের পাশাপাশি অনেক জটিল প্রসেসিং এর পর হয়তো বা বের করা সম্ভব।ফেসবুকে হ্যাক করার চেষ্টা করেও আসলে লাভ নেই কারণ ফেসবুকের বিশাল সুরক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে যা ভেঙে ফেসবুকের পাসওয়ার্ড হ্যাক করা সম্ভব নয়। Read more : ফ্রিল্যান্সিং কি? ফ্রিল্যান্সিং গাইডলাইন- ২০২১

তবে বর্তমানে কিছু সাইট আছে যা ব্যবহার করে অনেকে বা হ্যাকাররা পাসওয়ার্ড জানার কাজে ব্যবহার করে থাকে। এমন কিছু ফিশিং সাইট এবং মোবাইল অ্যাপস এর মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীর ফেসবুকের পাসওয়ার্ড চুরি করতে প্রতারনা করা যায়।যেমন ব্যবহারকারী কৌতুহল বশত বা ভূল বশত সেই সাইটে ঢুকলে তাকে তার ফেইসবুক পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ’ইন করতে বলা হয় তখন যদি ব্যবহারকারী উক্ত সাইটে প্রবেশ করে তখন হ্যাকাররা কৌশলে তার পাসওয়ার্ড চুরি করে নিতে পারে।

এখন আমরা ফিশিং সাইটগুলি, ফিশিং মোবাইল অ্যাপস এবং কি কি কৌশল অবলম্বন করলে আমরা অন্যের ফেসবুকের পাসওয়ার্ড জানতে পারব চলুন জেনে নেই, ফিশিং সাইট এবং ফিশিং অ্যাপগুলোতে অনেক ধরণের ম্যালওয়্যার (ভাইরাস) থাকে যা আপনার মোবাইল এবং কম্পিউটারের তথ্য বা স্যোসাল মিডিয়ার পাসওয়ার্ড চুরি করতে পারে। সুতরাং কোনও ফিশিং সাইটে কাজ করার আগে আপনাকে যাচাই বাছাই করে নিতে হবে । কারণ আপনার মোবাইল এবং কম্পিউটারের ডেটা যদি হারিয়ে যায় তবে সেই দায় কেউ বইবে না।

২০১৮ থেকে ২০১৯ এর আগে অনলাইনে অনেক ধরণের ফেসবুক ফিশিং সাইট ছিল, তবে এখন ফেসবুকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গুগল সহ প্রায় সমস্ত অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন থেকে ফেসবুকের ফিশিং সাইটগুলি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। সুতরাং আপনি কোনও ফিশিং সাইট তৈরি করতে চাইলে কোনও সাইটের সহায়তা নিতে পারবেন না।তবে আপনি যদি চান তবে আপনি নিজের ডোমেন এবং হোস্টিং কিনতে এবং ফেসবুকের মতো একটি ফিশিং সাইট তৈরি করতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে, আপনার অবশ্যই ওয়েব ডিজাইন এবং ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কে অনেক ধারণা থাকতে হবে।

অন্যথায় আপনি নিজেরাই ফিশিং সাইট তৈরি করতে সক্ষম হবেন না।আপনি ফ্রি ফিশিং সাইট তৈরি করে বা ফিশিং সাইট ব্যবহার করে অন্য ব্যক্তির ফেসবুক পাসওয়ার্ডগুলি খুঁজে পেতে “ডার্ক ওয়েব” ব্যবহার করতে পারেন। কারণ ডার্ক ওয়েবে হাজার হাজার ভাল মানের ফেসবুক ফিশিং সাইট রয়েছে। তবে, এক্ষেত্রে আপনার কম্পিউটারের তথ্য চুরি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের ব্যক্তিগত সুরক্ষার জন্য অন্ধকার ওয়েব ফিশিং সাইটের লিঙ্কগুলি ভাগ করতে পারে না। আপনার যদি সত্যিই প্রয়োজন হয়, আপনি টর ব্রাউজার ব্যবহার করে ডার্ক ওয়েবে ফিশিং সাইটগুলি সন্ধান করতে পারেন। Read learn : কম্পিউটারের জনক কে? আধুনিক কম্পিউটারের জনক কে?

কী লগারের সাহায্যে অন্যের ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানার চেষ্টা করা

কী লগার হ’ল এক ধরণের ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার। সাধারণত যখন কোনও ফেসবুক ব্যবহারকারী তার কম্পিউটার বা মোবাইলে এ জাতীয় সফ্টওয়্যার ইনস্টল করেন, তখন তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগ ইন করার পরে ফেসবুকের পাসওয়ার্ডটি মূল লগারে সংরক্ষণ করা হয়। হ্যাকাররা তখন সেই সফ্টওয়্যার অ্যাডমিন প্যানেল থেকে সহজেই শিকারের ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানতে পারে। সাধারণত কোনও সাধারণ মানুষ এ জাতীয় কাজ করতে পারে না। কারণ কী লগার ফেসবুক হ্যাকিংয়ের একটি পেশাদার পদ্ধতি। অনলাইনে দুটি ধরণের কী লগার সফটওয়্যার রয়েছে, অর্থ প্রদান এবং বিনামূল্যে। আপনি যে কোন একটি ব্যবহার করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনি নিজের সুরক্ষা মাথায় রেখে কাজ করবেন।

দ্যা ট্রুথ স্পাই দিয়ে অন্যের ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানা

অন্য ব্যক্তির ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড খুঁজে বের করার এটি একটি কার্যকর উপায়। দ্যা ট্রুথ স্পাই এর কোনও মুক্ত সংস্করণ নেই, এটি একটি সম্পূর্ণ প্রদত্ত সফ্টওয়্যার। এই সফ্টওয়্যার সংস্থা দাবি করেছে যে তারা যে কোনও ধরণের অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড জানতে পারে।দ্যা ট্রুথ স্পাই অ্যাপটি এনড্রয়েড এবং আইওএস উভয় প্ল্যাটফর্মের জন্য সাপর্টেবল ফর্ম। অনলাইনে অর্থ প্রদানের মাধ্যমে আপনি এই সফ্টওয়্যারটির সহায়তা নিতে পারেন।

অন্যের কম্পিউটার থেকে ফেসবুক পাসওয়ার্ড দেখার উপায়

এটি অন্য কারও ফেসবুক পাসওয়ার্ড সন্ধান করার সবচেয়ে সহজ উপায়। কারণ এই পদ্ধতিতে অন্যের ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানতে কোনও ধরণের অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয় না। তবে এক্ষেত্রে আপনার সেই ব্যক্তির মোবাইল থাকা দরকার যার ফেসবুক পাসওয়ার্ড আপনি জানেন। তার মানে আপনার কাছে ভিকটিমের মোবাইলটি এক মিনিটের জন্য হলেও হাতের নাগালে রাখতে হবে। সাধারণত বেশিরভাগ ফেসবুক ব্যবহারকারী ফেসবুকে লগ ইন করে তাদের পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করে, যাতে আবার ফেসবুকে লগ ইন করার সময় তাদের পাসওয়ার্ডটি ব্যবহার না করতে হয়। এবং আপনি সেই সুযোগটি আপনার বন্ধু বা নিকটাত্মীয়ের মোবাইল থেকে ফেসবুকের পাসওয়ার্ড জানতে পারেন।তবে সেই ব্যক্তি যদি প্রতিনিয়ত বা কয়েকদিনের ব্যবধানে পাসওয়ার্ড পরিবর্তনে অভ্যস্ত হয়ে থাকে তবে আপনার কোন লাভ নেই তার পাসওয়ার্ড জেনে।

ইউসি ব্রাউজার ও গুগল ক্রোম দিয়ে কিভাবে ফেসবুক পাসওয়ার্ড দেখা যায়

সাধারণত আমাদের দেশের অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ইউসি ব্রাউজার এবং গুগল ক্রোম ব্রাউজারে ফেসবুক ব্যবহার করেন। এই ক্ষেত্রে, ব্রাউজার থেকে ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানতে আপনার প্রথমে পছন্দসই ব্রাউজারটি খুলতে হবে। তারপরে প্রথমে মোবাইল ব্রাউজারটি খুলতে নীচের সহজ পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন।

আপনার মোবাইল ব্রাউজারটি এখানে খুলুন এবং তিনটি ডট আইকনে ক্লিক করুন এবং সেটিংসে ক্লিক করুন। তারপরে পাসওয়ার্ডগুলিতে ক্লিক করুন এবংতারপর দেখবেন একটি চিত্র প্রদর্শিত হবে। এখানে আপনি সমস্ত সংরক্ষিত অ্যাকাউন্ট দেখতে পাবেন। তারপরে তালিকা থেকে প্রথম অংশে ক্লিক করুন আর এরপর আপনি যদি দ্বিতীয় অংশের আই বোতামে ক্লিক করেন তবে আপনি ফেসবুকের পাসওয়ার্ড দেখতে পাবেন। তবে তার আগে অবশ্যই আপনাকে মোবাইলের স্ক্রিনে যে পাসওয়ার্ডটি দেয়া রয়েছে। এই পাসওয়ার্ডটিও জানতে হবে তারপরে আপনি আই বাটন এর উপরে ক্লিক করবেন। তাহলে সেভ করা পাসওয়ার্ড দেখতে পাবেন। পড়ুন : বাংলায় ব্লগিং (Bangali Blogging) করে মাসে কত টাকা আয় করা সম্ভব?

অন্যের কম্পিউটার থেকে ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানা

মোবাইলের মতো কম্পিউটারে সেভ করা ফেসবুক পাসওয়ার্ড সহ যে কোনও ধরণের পাসওয়ার্ড সহজেই জানা যাবে। এই ক্ষেত্রে, আপনি যার ফেসবুক পাসওয়ার্ডটি জানার চেষ্টা করছেন তার কম্পিউটার ব্যবহার করতে হবে। অন্য কারও কম্পিউটার থেকে ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানতে নীচের পদ্ধতিটি অনুসরণ করুন। প্রথমে কম্পিউটার ব্রাউজারটি খুলুন।

তারপরে ব্রাউজারের তিনটি ডট আইকনে ক্লিক করুন এবং তারপর ২য় অংশে সেটিংস বিকল্পে ক্লিক করুন। সেটিংসে ক্লিক করার পরে যে অপশনগুলি দেখতে পাবেন সেখান থেকে পাসওয়ার্ডে ক্লিক করুন।
এই বিভাগে কম্পিউটার সংরক্ষিত সমস্ত ধরণের আইডির নাম এবং পাসওয়ার্ড সংরক্ষিত থাকে। এখান থেকে আপনি সহজেই পাসওয়ার্ড জানতে পারবেন।

এখন আমরা জানব কিভাবে নিজের ফেসবুক পাসওয়ার্ড জানা যায় বা ভুলে যাওয়া পাসওয়ার্ড উদ্ধার করা যায়,
আমরা অনেক সময় আমাদের আইডির পাসওয়ার্ড ভুলে যাই। ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড ভুলে যাওয়ার পরে যখন আমাদের আবার ফেসবুকের পাসওয়ার্ড দরকার হয় তখন আমরা পাসওয়ার্ডটি সন্ধান করতে শুরু করি। অন্যথায় আমরা ফেসবুকের পাসওয়ার্ড নিয়ে চিন্তা করি না। স্বাভাবিকভাবে ভুলে যাওয়া মানুষের স্বভাব৷ কোনও বিষয় বারবার অনুশীলন না করে অল্প সময়ে ভুলে যাওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। সুতরাং যে কোন ধরণের পাসওয়ার্ড লিখে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ। আপনি যদি নিজের ফেসবুকের পাসওয়ার্ড ভুলে যান তবে আপনি কখনই জানতে পারবেন না। পড়ুন : সাদিয়া নামের অর্থ কি

এমনকি আপনি যদি নিজের ফেসবুক আইডি দিয়ে লগ ইন করেছেন তবে আপনি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগ ইন করে ফেসবুকের পাসওয়ার্ড জানতে পারবেন না। কারণ আপনার লগ ইন করা ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগ ইন করে ফেসবুকের পাসওয়ার্ডটি কেউ জানতে পারে না এবং আমাদের সুরক্ষা বিবেচনা করে ফেসবুক এ জাতীয় ব্যবস্থা করেছে। তাই আপনি যদি নিজের ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড ভুলে যান তবে ফেসবুকের পাসওয়ার্ড জানার উপায় নেই। তবে চিন্তার কোনও কারণ নেই।আপনি যদি নিজের ফেসবুকের পাসওয়ার্ড ভুলে যান তবে আপনি পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করতে পারেন। ফেসবুকের পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করার পরে আপনি আবার নতুন পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার ফেসবুক আইডি ব্যবহার করতে সক্ষম হবেন।

তবে চিন্তার কিছু নেই , আপনি যদি আইডিতে দুই থেকে চার মাস যদি লগইন না করেন তবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি সম্পূর্ণ সুরক্ষিত থাকবে। তবে আপনার আইডি যদি নতুন হয় বা আইডির বয়স কম হয় তবে আপনি যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য ফেসবুক আইডি ব্যবহার না করেন তবে আপনা

তবে চিন্তার কিছু নেই , আপনি যদি আইডিতে দুই থেকে চার মাস যদি লগইন না করেন তবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি সম্পূর্ণ সুরক্ষিত থাকবে। তবে আপনার আইডি যদি নতুন হয় বা আইডির বয়স কম হয় তবে আপনি যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য ফেসবুক আইডি ব্যবহার না করেন তবে আপনার অ্যাকাউন্টটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে অবরুদ্ধ হয়ে যেতে পারে। তারপরে আপনি পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি আবার খুলতে পারবেন। এই ক্ষেত্রে, আপনাকে অবশ্যই পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করতে হবে এবং এক থেকে দুই মাসের মধ্যে লগইন করতে হবে। তাহলে আপনার ফেসবুক আইডি সম্পূর্ণ নিরাপদ থাকবে।৷ এবার জানা যাক পাসওয়ার্ড রিসেট করার জন্য কি কি দরকার,

আপনি যদি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে যান তবে এটি পুনরায় সেট করতে আপনাকে কোনও বিশেষজ্ঞের কাছে যেতে হবে না ঘরে বসেই সহজে আপনি কাজটি করতে পারবেন । আপনি আপনার মোবাইলটি দিয়ে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ডটি দুই মিনিটের মধ্যে পুনরায় সেট করতে বা পুনরুদ্ধার করতে পারেন। পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করতে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের মোবাইল নম্বর বা ইমেল ঠিকানা অবশ্যই জানতে হবে। এর অর্থ হল আপনার মোবাইল নম্বর বা ইমেল ঠিকানাটি আপনার জানা দরকার যা নিবন্ধিত বা আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সাথে সংযুক্ত রয়েছে।

প্রথমত আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করতে প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইলের ডেটা চালু করতে হবে এবং ফেসবুক অ্যাপটি ইন্সটল করতে হবে।ওখানে ফরগট পাসওয়ার্ডে ক্লিক একটি চিত্র প্রদর্শিত হবে।

সেখানে একটি খালি বাক্সে আপনার ফেসবুক আইডি খোলার সময় আপনি যে মোবাইল নম্বর বা ইমেল ঠিকানাটি ব্যবহার করেছিলেন তা টাইপ করতে হবে। যে কোনও একটি মোবাইল নম্বর বা ইমেল ঠিকানা রেখে মোবাইল কীবোর্ডে অনুসন্ধান বোতাম টিপলে আপনার ফেসবুক আইডি প্রদর্শিত হবে। এখানে আপনাকে অবশ্যই সঠিক মোবাইল নম্বর বা ইমেল ঠিকানা দিয়ে অনুসন্ধান করতে হবে।

তবে আপনি যদি ভুল মোবাইল নম্বর এবং পাসওয়ার্ড প্রবেশ করেন তবে আপনার অ্যাকাউন্টটি পাওয়া যাবে না।
এরপর আপনার অনুসন্ধানের ফলাফল প্রদর্শিত হলে এই ধাপে আপনাকে আপনার ফেসবুক আইডিতে ক্লিক করতে হবে।
এখানে আপনাকে বেশি কিছু করতে হবে না। এটি যেমন রয়েছে তেমন ছেড়ে দিন এবং নীচের নীলাভ কনটিনিউ বোতামে ক্লিক করুন। কনটিনিউ অপশনে ক্লিক করার পর আপনার প্রদত্ত মোবাইল নম্বরটিতে ফেসবুক থেকে একটি কোড প্রেরন করবে।

এই পদক্ষেপে, ফেসবুক থেকে আপনার মোবাইলে কোডটি প্রবেশ করুন এবং কন্টিনিউ এ ক্লিক করুন। এখানে আপনাকে কিছু করতে হবে না। এটি যেমন নির্বাচিত হয়েছে তেমন রেখে আপনি এখানে যে খালি বাক্সটি দেখছেন তাতে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের জন্য আপনাকে নতুন পাসওয়ার্ডটি টাইপ করতে হবে। আপনি যদি নিজের পছন্দের পাসওয়ার্ডটি টাইপ করেন এবং কন্টিনিউ বিকল্পটিতে ক্লিক করেন তবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করা হবে।
আপনি যদি নিজের পছন্দের পাসওয়ার্ডটি টাইপ করেন এবং কন্টিনিউ বিকল্পটিতে ক্লিক করেন তবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ডটি পুনরায় সেট করা হবে।

তাহলে এই প্রক্রিয়াগুলো অনুসরন করে আপনি নিজের এবং অন্যের পাসওয়ার্ড সহজেই বপর করতে পারবেন। তবে অন্যের পাসওয়ার্ড বের করা থেকে বিরত থাকুন। কারন কাউকে না বলে তার পাসওয়ার্ড বা তথ্য চুরি করা বা নেওয়া এক ধরনের অপরাধ,এটি একটি সাইবার অপরাধ । পাশাপাশি নিজের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফেইসবুক দেওয়া বা ফেইসবুকের মাধ্যমে আদান প্রদান করা থেকে বিরত থাকুন। যেখানে সেখানে পাসওয়ার্ডের মাধ্যমে প্রবেশ করবেন না।নিজের পাসওয়ার্ড মনে রাখুন নয়ত লিখে রাখুন।নিয়মিত পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করা অভ্যাস করুন।অন্যের মোবাইল বা কম্পিউটারের আইডি প্রবেশ করালে পরে সেই তথ্য রিমুভ করুন যাতে পরবর্তীতে কেউ তা বের করে আপনাকে সমস্যায় না ফেলে। এসব তথ্য মেনে চল্লে আশা করা যায় আপনার পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত থাকবে সাথে আপনি ও ঝামেলা মুক্ত থাকতে পারবেন।

Rahmannasimahttps://dokandaari.xyz
খুব ছোট বেলা থেকেই লেখালেখির খুব নেশা। তাই লেখতে ভালবাসি। আমি আতিকুর রহমান।ইনফরমেশন মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত আছি। কিছু টিপস এবং অনলাইনে আয় বিষয়ে সঠিক গাইডলাইন সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ব্লগিং এ জড়িত হয়েছি। ধন্যবাদ
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + six =

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular