Homeঅনলাইনইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় ২০২১

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় ২০২১

আজ আমরা জানব ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় বা কি কি উপায় এ ইউটিউব থেকে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যদি আপনি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সহজ রাস্তা খুজে থাকেন তাহলে ধরে নিন যে আপনি আসল জায়গায় এসে গেছেন। আজ আমি শুরু থেকে শেষ পযন্ত ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় তুলে ধরব ।শুধু একটু সময় নিয়ে এই ব্লগটি পড়ে যান। আশা করছি আপনার অনেক উপকারে আসবে।

 ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় 

আমার দেখা অনেক ফ্রেন্ড আজ ইউটিউব করে তাদের সংসার পরিচালনা করছেন। বিশ্বাস করেন যাদেরকে একসময় শুধু উপহাস করত সবাই। কিন্তু তারা আজ অনেক দূর নিজেকে নিয়ে গেছে।দিন যত গড়াচ্ছে দিন দিন মানুষ টেকনোলজির দিকে আগাচ্ছে। তাই টেকনোলজির এই সময় আপনি কেন নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখবেন। ইউটিউব শুরু করার একটা বড় কারণ হচ্ছে আপনি কারুর সরণাপন্ন হলেন না। আপনার যখন ইচ্ছা তখন কাজ করতে পারবেন। কিন্তু আপনাকে চাকুরী করতে হলে সামান্য ৫০০০ টাকার জন্য সময় মত অন্যর কথা মেনে চলতে হবে। এটা একটা বুরিং লাইফ। তাছাড়া চাকুরীর বাজার এখন আগুন তা ত আপনি খুব ভাল করেই জানেন।

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়
ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

ইউটিউব শুরু করার জন্য আপনার যোগ্যতা কি কি থাকতে হবে?

অনলাইনে টাকা আয় করার জন্য যতগুলো সেক্টর রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হল ইউটিউব। তবে মিনিমাম কিছু যোগ্যতা আপনার থাকা লাগবে। তা হল ইংরেজী মোটামোটি জানা।খুব বেশী ভাল করে জানতে হবে তা নয় তবে ভাল জানলে আপনি আরও ভাল কিছু করতে পারবেন। তবে শিখার কোন বিকল্প নেই ।



প্রতিদিন আপনি যা জানতে চান তা ইউটিউবে লিখে সার্চ দিন। সাথে সাথে সমাধান পেয়ে যাবেন। অনলাইনের এমন জগৎ এ কেউ আটকিয়ে থাকে না। কোন না কোন ভাবে ই সমাধান সম্ভব। আমার ব্লগে আমি চেষ্টা করি অনলাইনে আয় করার সঠিক রাস্তা দেখানোর জন্য। নিয়মিত আমার ব্লগে চোখ রাখুন । তাহলে আশা করি অনেক কিছু জানতে পারবেন।

ইউটিউব কি আপনার জন্য [ ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় ]

ইউটিউব আপনার জন্য না কিংবা হ্যা কিভাবে বুজবেন? খুব সহজ । আপনি যদি একজন দশম শ্রেণীর স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার জন্য ইউটিউব না।তার কারণ ইউটিউব আপনার পড়াশুনার অবশ্যই ক্ষতি করবে। তাই বলে ত আর কেউ বসে নেই । যে কেউ এখন ইউটিউব শুরু করে দিচ্ছে।তবে ইউটিউবে লেগে থাকলে আপনার ক্যারিয়ার হবে এটা সিউর। সময় হয়ত কারোর কম আর কারোর বেশী লাগবে । Read More : বাংলায় ব্লগিং (Bangali Blogging) করে মাসে কত টাকা আয় করা সম্ভব?।

বিশ্বে এমন অনেকেই আছেন যাদের বয়স ১৮ ও হয় নাই। কিন্তু তারা ইউটিউব করে মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছে। তাই আপনার যদি ইউটিউব কে নিয়ে ক্যারিয়ার করার ইচ্ছা থাকে তাহলে আজ থেকে ই শুরু করে দিন। তাহলে একদিন সফল হবেন আশা করছি।

কীভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলব [ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায়]

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার একমাত্র উপায় হল আপনার ভিতরে ইউনিক ভিডিও তৈরী করার ক্ষমতা থাকতে হবে। অন্য কারুর ভিডিও আপনি ব্যবহার করতে পারবেন না। আপনার নিজের ভিডিও আপনার চ্যানেলে আপলোড করতে হবে। এতে করে আপনি ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার যেই শত রয়েছে তা যদি আপনি পুরন করতে পারেন তাহলে আপনার টাকা আসা শুরু হবে।

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

টাকা ইনকাম করার যোগ্য করে তুলার শর্ত হল আপনার চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টা্ ওয়াচটাইম এবং ১০০০ সাবস্ক্রাইব পূরন হলেই আপনি টাকা ইনকাম করার জন্য যোগ্য। মানে হচ্ছে আপনার ভিডিও গুলো মানুষ ৪০০০ ঘন্টা দেখতে হবে। তাছাড়া ও আপনি ইউটিউব থেকে গুগল এ্যাডসেন্স ছাড়াও অনেক উপায় এ আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এবার ব্লগটির মূলকথা আলোচনা করি । প্রথমে আপনার একটি ইউটিউব চ্যানেল খোলা লাগবে তারপর সেখানে আপনার নিজের ভিডিও আপলোড করে গুগল এ্যাডসেন্স এর যোগ্য করে তুলতে হবে। তারপর আপনি টাকা ইনকাম করার জন্য প্রস্তুত হবেন। কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন আপনি যদি তা না জেনে থাকেন তাহলে এইখানে ক্লিক করে জেনে নিন কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খোলা যায়।

ইউটিউবে আপনি কি নিয়ে কাজ করবেন [ ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় ]

অনেকেই এটা নিয়ে বেশ চিন্তিত দেখা যায়, বা এমন অনেক প্রশ্ন আসে ভাই আমি ত সবই বুঝলাম কিন্তু আমি কি নিয়ে কাজ করব। এটা ই বেশ মুশকিলে ফেলে দিল। চিন্তার কোন কারণ নেই। সহজ ভাষায় আপনাকে আমি যদি বলতে হয় আপনি যেটা বেশী ভাল পারেন বা করতে ভালবাসেন সেটা নিয়ে ই আপনি একটি চ্যানেল চালিয়ে যেতে পারবেন। আপনাকে আগে নিজেকে প্রশ্ন করতে হবে আমি কোন বিষয়ে অভিজ্ঞ। সেটা যদি আপনি খুজে বের করতে পারেন তাহলে আপনার ৮০% কাজ শেষ। এবার আসুন একটি উদাহরণ এর মাধ্যমে আপনাকে বিষয়টি আরো পরিষ্কার করি।

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

ধরুণ আপনি একজন গেম লাভার । সারাক্ষণ গেমস খেলতে পছন্দ করেন। তাহলে এটা ই আপনার ভাল লাগা। আর এটা নিয়ে ই আপনি ভিডিও তৈরী করে সেখান থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিতে পারেন। শুধু মাত্র আপনি যখন গেমস খেলেন সেই গেমসটি স্ক্রীন রেকড করে ইউটিউবে আপলোড করে ই খালাশ। শুধু এভাবে ই অনেকে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করছে।কিভাবে স্ক্রিন রেকড করে ভিডিও মেক করবেন তা জানতে হলে আমার এই ব্লগটি পড়ে আসুন। স্ক্রিন রেকড করে কীভাবে ভিডিও তৈরী করবেন।

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায়

আশা করছি আপনি বিষয়টি বুঝতে পারছেন। আবার ধরেন আপনি আইটি বিষয়ে খুব অভিজ্ঞ। আপনিও কম্পিউটার বিভিন্ন বিষয়ে ভিডিও তৈরী করে ইউটিউবে আপলোড করে ইনকাম করতে পারেন।আপনার প্রতি আমার সাজেশন হল আপনি কারুর কথা না শুনে আগে আপনার প্রতিভা টি খুজে বের করুন। ভাবুন ও নিজেকে অনেক সময় দেয়ার চেষ্টা করুন।

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায়
তাহলে দেখবেন আপনি পেয়ে গেছেন।তবে অমুক এই বিষয়ে ভাল ইনকাম করছে আবার তমুক ভাই মাসে ১০০০ ডলার আয় করছে এই কাজ করে ইত্যাদি ইত্যাদি। আপনি কারুর কথা ই শুনার দরকার নাই। আপনি আপনার মত কাজ করে যান। দেখবেন একদিন সফল হবেন। আর অনলাইন ইনকাম রিলেটেড যেকোন সমস্যা হলে আপনি কমেন্ট অথবা এই গ্রুপে আমাকে মেসেজ দিতে পারেন । আমি অবশ্যই আপনার সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করব।

আমি ইউটিউব থেকে কত টাকা আয় করি

আমি অনলাইনে অনেক আগেই ইনকাম করার চেষ্টা করে আসছি । কিন্তু ধোকাবাজ দের পাল্লা পড়ে অনেক টাকা নষ্ট করেছি। তারপর থেকে একটা প্লান রেডি করেছি যে টানা ৬ মাস ইউটিউব করে দেখব। দেখি ইনকাম হয় কি  না। যেমন ভাবা তেমন কাজ। শুরু করে দিলাম ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করা। মজার বিষয় হল আমার বউকে ইউটিউব সম্পর্কে বিস্তারিত বলেছিলাম। তারপর তার হাত দিয়েই ইউটিউব চ্যানেল টি গড়া। ধরতে গেলে আমার বউ এর কারনেই এতদূর আসা।তারপর টানা ভিডিও দিয়ে যাচ্ছি ।

কিন্তু কখন ১০০০ সাবস্ক্রাইব আর ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম হবে আর মন মানছে না্। তারপর হটাৎ করে আমার একটি ভিডিও ভাইরাল হল । বিশ্বাস করবেন না এই একটি ভিডিও থেকেই আমার ২০০০ ঘন্টা এর উপরে চলে আসছে।তারপর হু হু করে সাবস্ক্রাইব ও বেড়ে গেছে। তার পর সবকিছু তেই যেন একটা ভাল লাগা কাজ করছিল। এরপর মনিটাইজেশন অন করার প্রথম দিনেই আসল ২.৮০ ডলার। এভাবে আস্তে আস্তে ডলার জমা শুরু হল ।

এখন আল্লাহর রহমতে হাত খরচের টাকা টা চলে আসে। তবে চ্যানেলটি একদম ই নতুন। সেই হিসেবে মাসে ২০০ ডলার এর কাছাকাছি চলে আসে। এটা আমার একটা অভিজ্ঞতা আপনাদেরকে শেয়ার করলাম। যদিও এগুলো সিক্রেট। তারপর ও কিছু মানুষ দেরকে মোটিভেট করবে অনলাইনে কাজ করতে। তাই শেয়ার করলাম।

তাই বলছি আপনার যদি ইউটিউব থেকে ইনকাম করার ইচ্ছা থাকে তাহলে শুরু করে দিন। মনোযোগ দিয়ে ভিডিও মেক করেন। আর খুজুন মানুষ কি চায়? কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশী পছন্দ করছে? অনেক ভেবে চিন্তে ভিডিও মেক করুন। তাহলে আশা করছি খুব ভাল রেজাল্ট পাবেন। শুরুটা অনেক কষ্ট হলেও যখন মাসে একটা পেমেন্ট চলে আসবে তখন কাজের গতি টা আরও বেড়ে যাবে। তাই মনোবল শক্ত রেখে কাজ শুরু করে দিন।

ইউটিউব থেকে টাকা তোলার উপায়

এখন প্রশ্ন হল ইউটিউব থেকে টাকা তোলার উপায় কি? সহজ কথা হল আপনি যখন ইউটিউব মনিটাইজেশন পেয়ে যাবেন তখন আপনার একটি এ্যাডসেন্স একাউন্ট তৈরী হবে। যেখানে প্রতি মাসের ১১ তারিখে সব টাকা জমা হয়ে যাবে। আর যখন আপনার এডস্যান্স একাউন্টে ১০ ডলার হয়ে যাবে তখন গুগল ভেরিফিকিশেন এর জন্য তারা আপনাকে একটি চিঠি পাঠাবে।

সেখানে আপনার চার ডিজিটের একটি পিন থাকবে ঔ পিনটি বসিয়ে আপনার এ্যাডসেন্স টি ভ্যারিফাই করে নিতে হবে। তারপর সেখানে ব্যাংক একাউন্ট এ্যাড করে দিবেন। ব্যাস কাজ শেষ । যখন আপনার এডস্যান্স একাউন্টে ১০০ ডলার পুরন হয়ে যাবে তখন মাসের ২১ তারিখের পর ২৮ তারিখের মধ্যে আপনার ব্যাংকে টাকা পৌছে যাবে।  তবে এই ধাপ গুলো আপনাকে খুব সাবধানে শেষ করতে হবে। একটু এদিক সেদিক হলে সব কিছু গোলমাল হয়ে যাবে। তাই খুব সাবধানে এগুলো ঠিক করে নিবেন।

Rahmannasimahttps://dokandaari.xyz
খুব ছোট বেলা থেকেই লেখালেখির খুব নেশা। তাই লেখতে ভালবাসি। আমি আতিকুর রহমান।ইনফরমেশন মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত আছি। কিছু টিপস এবং অনলাইনে আয় বিষয়ে সঠিক গাইডলাইন সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য ব্লগিং এ জড়িত হয়েছি। ধন্যবাদ
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 − fifteen =

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular